কৌশলে সরকার ৭৩ বছর বয়স্ক খালেদাকে কারারুদ্ধ করে রেখেছে: নজরুল

408

nazrul islam khan BNP‘সরকার বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি যে আচরণ করছে, তা কোনও মানুষের আচরণ নয়। এটা অমানুষের আচরণ। যে মামলায় আদালত তাকে সাজা দিয়েছেন, সেই মামলায় তিনি দেশের সর্বোচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন। কিন্তু সরকার নানা কৌশলে ৭৩ বয়সী এই বয়স্ক নারীকে কারাগারে আবদ্ধ করে রেখেছে’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান।

মঙ্গলবার রাজধানীর এক হোটেলে বাংলাদেশ লেবার পার্টি আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘এই দিন তো শেষ দিন নয়। যেসব দৃষ্টান্ত এই সরকার তৈরি করছে, আমাদের তার সব প্রয়োগ করার প্রয়োজন হবে না। আমরা নেত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছি। প্রয়োজনে আবার নেত্রীর নির্দেশ আসলে আন্দোলনের ধরণের পরিবর্তন হলে ২০ দলীয় জোটকে সেটির জন্যও প্রস্তুত থাকতে হবে’।

ইফতার মাহফিলে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে বিএনপি বা তার অঙ্গসংগঠনের অগ্নিপরীক্ষা। এই অগ্নিপরীক্ষায় তাদের কৃতকার্য হতেই হবে সেটা না হলে এর বোঝা গণতান্ত্রিক আন্দোলনে উপরে পড়বে। মুখে এক কাজে অন্যটা এটা করার কোন সুযোগ এখন আর নেই। কাজ ও কর্মের মধ্যে সম্পর্ক থাকতে হবে এটাই হচ্ছে বেগম জিয়ার মুক্তির একমাত্র পথ।’

তিনি আরো বলেন, ‘আওয়ামী লীগ শেখ মুজিবকে মুক্ত করেছে আইনের পথে না। তারা রাজপথে আন্দোলন-সংগ্রাম মাধ্যমেই শেখ মুজিবকে পাকিস্তানিদের হাত থেকে মুক্ত করেছে সেহেতু আওয়ামী লীগ যা করেছে আজকে বিএনপি করলে সমস্যা কি?’

লেবার পার্টির চেয়ারম্যান এমদাদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ইফতার মাহফিলে স্বাগত বক্তব্য দেন দলের মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদী। বক্তব্য রাখেন চেয়াপরসনের উপেদষ্টা ব্যারিস্টার হায়দার আলী, হাবিবুর রহমান হাবিব, জাতীয় পার্টি (জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, প্রেসিডিয়াম সদস্য আহসান হাবিব লিঙ্কন, এনপিপি চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, এলডিপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন ২০ দলীয় জোটের শরিক জামায়াতে ইসলামীর শুরা সদস্য ফরিদ হোসাইন, জাগপার সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া, মহানগর সদস্য সচিব মো. শহীদুননবী ডাবলু, কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান সাহিদুর রহমান তামান্না, বিজেপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আবদুল মতিন সাউদ, এনপিপি মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, মুসলিম লীগের মহাসচিব শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, এনডিপি ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, খেলাফত মজলিশের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শেখ গোলাম আজগর, জাতীয় পার্টি (জাফর) যুগ্ম মহাসচিব এস.এস.এম শামিম, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক সাঈদ আহমেদ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মহিউদ্দিন ইকরাম, ইসলামিক পার্টি মহাসচিব অ্যাডভোকেট আবুল কাশেম, ইসলামী ঐক্যজোট যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শওকত আমীন, ডিএলের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিজানুর রহমান, সাবেক ছাত্রনেতা এম.এন শাওন সাদেকী প্রমুখ ইফতার মাহফিলে অংশ নেয়।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.